Coronavirus Disease (COVID-19) in Bangladesh 2020

By | March 27, 2020

Coronavirus disease (COVID-19) is an infectious disease in our country. Very badly this virus. Most people infected in our country with the COVID-19 virus will experience mild to moderate respiratory illness and recover without requiring special treatment. We are some people respond to the disease in our country. Older people and those with underlying medical problems like cardiovascular disease, diabetes, chronic respiratory disease, and cancer are more likely to develop serious illness.

ফাঁস হলো বিশ্বের প্রথম করোনা রোগীর তথ্য, ছিলেন মাছ বিক্রেতা

করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান শহর থেকে তা ছড়িয়ে পড়ে সারাবিশ্বে। এ ভাইরাসটি এখন গোটা বিশ্বের আতঙ্ক। আক্রান্তের সংখ্যা পাঁচ লাখের বেশি, মৃত্যু হয়েছে ২৪ হাজার ৯০ জনের। তবে ভাইরাসটিতে বিশাল সংখ্যক মানুষ সংক্রমিত হলেও প্রথম কে এটিতে আক্রান্ত হয়েছিল তা জানতে গবেষকদের কৌতূহলের শেষ ছিল না। এটি জানানোর জন্য চীনকে বারবার বলা হলেও তা জানায়নি। অবশেষে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম সেই ব্যক্তির তথ্য ফাঁস হয়েছে।

দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, চীনের উহান শহরেরই এক নারী সবার আগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হন। তার নাম উই গুইশিয়ান, বয়স ৫৭ বছর। উহানের হুনান মার্কেটে বাগদা চিংড়ি বিক্রি করতেন।

বন্যপ্রাণী বিক্রির বাজারে তার দোকান ছিলো বলেও সম্প্রতি ফাঁস হওয়া নথিতে বেরিয়ে এসেছে। 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই নারী গত বছরের ১০ ডিসেম্বর অসুস্থ হয়ে পড়েন। ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ সালে তাকে উহান হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু ততদিনে হুনানের অনেকের শরীরেই তার মতো লক্ষণ দেখা দেয়া শুরু হয়। ঠান্ডাজনিত সমস্যা ভেবে প্রথমে তিনি স্থানীয় ক্লিনিকে গিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন। এরপর আবারো চিংড়ি বিক্রি শুরু করেন। সে সময়েই তার মাধ্যমে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। 

চীনের একটি সংবাদমাধ্যমের সাংবাদিককে ওই নারী বলেন, আমি ক্লান্ত হয়ে পড়ছিলাম। আমি এর আগেও এরকম ক্লান্তি অনুভব করেছি। তিনি আরো জানান, প্রত্যেক শীতে তিনি ফ্লুতে আক্রান্ত হন। সে কারণে তিনি ভেবেছিলেন এটা সাধারণ ফ্লু। আটদিনের মাথায় অবশ্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়। হাসপাতালে ভর্তির পর তার অবস্থা আরো খারাপের দিকে যায়। 

উই গুইশিয়ান বলেন, চিকিৎসকরা বুঝতে পারছিলেন না, আমার সঙ্গে কী ঘটেছে। একপর্যায়ে আমাকে কিছু ইনজেকশন লিখে দিয়ে হাসপাতাল থেকে রিলিজ দেয়া হয়। 

এরপর তিনি আবারো হাসপাতালে যান এবং বাড়তি ইনজেকশন চান। তিনি দাবি করেন, তার শরীরে কোনো অ্যালার্জি ছিলো না। ডিসেম্বরের শেষের দিকে তাকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। ৩১ ডিসেম্বর যে ২৭ জনকে পরীক্ষা করে দেখা হয়, তাদের একজন ছিলেন উই গুইশিয়ান। এছাড়াও যে ২৪ জনের হুনান মার্কেটের সঙ্গে সম্পৃক্ততা ছিল, তার মধ্যেও তিনি ছিলেন একজন।

করোনা ভাইরাস: সকলের ঘরে ঘরে খাদ্য ও অর্থ পৌঁছে দেওয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী

কতটা ভয়ংকর এই ভাইরাস?

শ্বাসতন্ত্রের অন্যান্য অসুস্থতার মতো এই ভাইরাসের ক্ষেত্রেও সর্দি, কাশি, গলা ব্যথা এবং জ্বরসহ হালকা লক্ষণ দেখা দিতে পারে । কিছু মানুষের জন্য এই ভাইরাসের সংক্রমণ মারাত্মক হতে পারে। এর ফলে নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট এবং অর্গান বিপর্যয়ের মতো ঘটনাও ঘটতে পারে। তবে খুব কম ক্ষেত্রেই এই রোগ মারাত্মক হয়। এই ভাইরাস সংক্রমণের ফলে বয়স্ক ও আগে থেকে অসুস্থ ব্যক্তিদের মারাত্মকভাবে অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি বেশি।

Some people saved Coronavirus disease. So you can stay home and more than washing your hand and cline your aria because of the Coronavirus disease people attacked to very recently. So we are very seriously Follow the advice given by your healthcare provider, your national and local public health authority or your employer on how to protect yourself and others from COVID-19.

What is the Corona Virus?

The word coronavirus is derived from the Latin corona, which means crown. Because the electron microscope looks like a crown on the virus. And don’t name it. The virus’s surface is rich in proteins, which are made up of by the viral spike papilloma. This protein destroys infected tissues. There are many species of coronavirus. Coronaviruses of all species typically display four types of proteins called spike (S), envelope (E), membrane (M), and nucleocapsid (N).

Coronavirus disease (COVID-19) Symptoms

How to understand coronavirus? After looking at some of the symptoms, you will know if you have the virus. Following below the full information here

Common symptoms include:

  • fever
  • tiredness
  • dry cough.

Other symptoms include:

  • shortness of breath
  • aches and pains
  • sore throat
  • and very few people will report diarrhoea, nausea or a runny nose.

How to prevent coronavirus?

  • A) Wash your hands after a cough or cough.
  • B) Cover your mouth before coughing or sneezing.
  • C) Avoid intimacy with someone if you think you are infected.
  • D) Avoid eating cooked meat and eggs.
  • E) Keep yourself hydrated all the time.
  • F) Take medication only when symptoms appear and do not let the situation get worse.
  • G) Avoid smoky areas or smoking.
  • H) Take appropriate rest.
  • I) Stay away from the crowd.

More information here>> Coronavirus disease (COVID-19)

You can be reading Bangla version >> Coronavirus disease (COVID-19)

বাংলায় পড়তে নিচে দেখুন

Finally, the garment owners’ organization Bangladesh Garment Manufacturers and Exporters Association (BGMEA) has decided to close all garments.

অবশেষে সব গার্মেন্টস বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে তৈরি পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ। বৃহস্পতিবার সংগঠনটির সভাপতি রুবানা হক গার্মেন্টস মালিকদের কাছে সব কারখানা বন্ধের অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দিয়েছেন।
বিজিএমইএ’র সভাপতির লেখা চিঠিতে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী সবাইকে সুনির্দিষ্ট দিক নির্দেশনা দিয়েছেন। সবার সুরক্ষা এবং সু-স্বাস্থ্যের জন্য কিছু সচেতনতামূলক পদক্ষেপ নিতে বলেছেন। প্রধানমন্ত্রীকে অনুসরণ করে সর্ববৃহৎ শিল্প হিসেবে আমাদের দৃষ্টান্ত স্থাপন করা উচিত। এমতাবস্থায় কারখানা বন্ধ করে দেয়া জরুরি বলেও অভিমত ব্যক্ত করেছেন তিনি।

রুবানা হক বলেন, সরকারের সাধারণ ছুটি যতদিন, ততদিন পর্যন্ত কারখানা বন্ধের জন্য সবাইকে বলা হয়েছে। করোনা থেকে রক্ষায় সরকারের ঘোষিত সাধারণ ছুটির সঙ্গে সমন্বয় করে সব তৈরি পোশাক কারখানা বন্ধ রাখতে মালিকদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

বন্ধ কারখানার শ্রমিকরা মার্চ-এপ্রিলের বেতন একসঙ্গে পাবেন বলেও জানান তিনি। তবে কোনো কারখানা মালিক চাইলে তার কারখানা খোলা রাখতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে শ্রমিকদের সর্বোচ্চ স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। কোনো শ্রমিক করোনায় আক্রান্ত হলে বা কোনো সমস্যা হলে এক্ষেত্রে কারখানার মালিককে দায়দায়িত্ব নিতে হবে বলে জানান রুবানা হক।

সূত্র: ডেইলি-বাংলাদেশ

দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৪৮

দেশে করোনাভাইরাসে নতুন করে আরো ৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে দুইজন চিকিৎসক। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪৮ জনে।
শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা এক লাইভ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এসব তথ্য জানান।

মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানান, এর আগে মোট করোনায় আক্রান্ত ছিলেন ৪৪ জন। তাদের মধ্যে মোট ১১ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

ব্রিফিংয়ে করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকতে নাগরিকদের করণীয়ও তুলে ধরেন তিনি।

গত ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের উহানে প্রথম শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাস এখন বৈশ্বিক মহামারি। বিশ্বের প্রায় ২০০টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে এ ভাইরাসটি। এখন পর্যন্ত এই প্রাণঘাতী ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৫ লাখ ৩২ হাজার ২৬৩ জন এবং মারা গেছেন ২৪ হাজার ৯০ জন। অপরদিকে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন এক লাখ ২৪ হাজার ৩৪৯ জন।

বাংলাদেশে এ ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে গত ৮ মার্চ। করোনার বিস্তাররোধে দেশের সব স্কুল-কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় এবং সব প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে সভা-সমাবেশ ও গণজমায়েতের ওপর।

বন্ধ করে দেয়া হয়েছে দেশের সব বিপণিবিতান। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে আদালতও। এমনকি একাধিক এলাকাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বাস, ট্রেন, লঞ্চসহ সব ধরনের গণপরিবহন। এ কার্যক্রমে স্থানীয় প্রশাসনকে সহায়তার জন্য দেশের সব জেলায় মোতায়েন করা হয়েছে সশস্ত্র বাহিনী।

সূত্র: ডেইলি-বাংলাদেশ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *